ত্বকের হাজার সমস্যায় ডাবের জল

রনিজ রাজা মন্ডল, নদীয়া : খুব গরমে যখন প্রাণ ওষ্ঠাগত তখন একটা কচি ডাবের জল পেলে মন্দ হয়না। ডাবের জল তেষ্টা মেটানোর সাথে কমিয়ে দেয় ক্লান্তি। ডাবের জলের মিষ্টি স্বাদ ও হালকা গন্ধে মেজাজটা ফুরফুরে হয়ে ওঠে।

কিন্তু জানেন কি শুধু ক্লান্তি নয়, ডাবের জল কমাতে পারে আপনার ত্বকের হাজার সমস্যা। ডাবের জলে থাকে এসেনশিয়াল মিনারেলস, ভিটামিনস, সোডিয়াম এবং পটাশিয়াম। এছাড়াও এতে অ্যান্টি মাইক্রোভাল এবং অ্যান্টি ফাংগাল প্রপার্টিস রয়েছে, যা ব্রণের হাত থেকে স্কিনকে বাঁচায় এবং স্কিনের দাগ-ছোপ হালকা করতে সাহায্য করে। এছাড়া ডাবের পানিতে থাকে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি স্কিনের সানবার্ন দূর করে এবং স্কিন টোন লাইট করে।

নিয়মিত ভাবে ডাবের জলে মুখ ধুলে, ত্বককে ভেতর থেকে পরিস্কার করে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকায় ডাবের জল বয়সের ছাপ দূর করে।

ডাবের জল খাওয়া এবং সরাসরি ত্বকে মাখানোর মাধ্যমে অনেক কাজ পাওয়া যেতে পারে।

ডাবের জল বেশ কয়েক রকমভাবে ব্যবহার করা যায় –
১) সরাসরি ডাবের জল মুখে লাগিয়ে বা তুলো দিয়ে মুখে লাগিয়ে, শুকিয়ে যাবার পর মুখ ধুয়ে ফেলতে হয়। এর ফলে ত্বককে হাইড্রেট এবং পরিস্কার করে।

২) সামান্য চালের গুঁড়োর সাথে ডাবের জল মিশিয়ে স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। এর ফলে মৃত কোষ গুলো উঠে পড়ে।

৩) মসুর ডালের সাথে মিশিয়ে ফেসপ্যাক হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

সুস্থ, সুন্দর ত্বকের রহস্য কিন্তু এই ডাবের জলেই লুকিয়ে আছে। তাই আপনিও ব্যবহার করে দেখতে পারেন। নিশ্চিত ফল পাবেন।

close