ডেল্টার ক্ষেত্রে কোভ্যাক্সিন কতটা কার্যকরী?

জোনাকি পণ্ডিত: সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গিয়েছে, করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে ভারতীয় করোনা টিকা কোভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা ৭৭ দশমিক ৮ শতাংশ নয়, মাত্র ৫০ শতাংশ। এই তথ্য প্রকাশ পেতেই গোটা দেশ জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ১৫ এপ্রিল থেকে ১৫ মে-এর মধ্যে হওয়া গবেষণার উপর ভিত্তি করে ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে ল্যানসেট জার্নালেও।

পাশাপাশি, ফাইজার-বায়োটেক ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯৩.৭% থেকে ৮৮%। অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৭৫% থেকে ৬৭%। তবে, তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়ালে কোভ্যাক্সিনের আনুমানিক কার্যকারিতা প্রায় ৬৫% ছিল বলে জানানো হয়েছিল। গবেষণার রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, টিকার ডোজ সম্পন্ন করার পর ৭ সপ্তাহ পর্যন্ত করোনা প্রতিরোধে এই পরিমাণ কার্যকারিতা থাকে কোভ্যাক্সিনের। যদিও করোনায় আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থতা ও মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে কোভ্যাক্সিন কতখানি কার্যকর, সে বিষয়ক কোন তথ্যের উল্লেখ রিপোর্টে পাওয়া যায়নি। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি, পুনে একযোগে কোভ্যাক্সিন তৈরি করেছিল।

তবে এখন দেশের করোনা-গ্রাফ নিম্নমুখী। কিছুটা কমল দৈনিক মৃত্যু ও সংক্রমণ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বৃহস্পতিবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ১১৯ জন। গতকাল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ২৮৩। বিশেষজ্ঞদের মতে ভারতের করোনা-যুদ্ধে লড়াই করার হাতিয়ার টিকাকরন প্রক্রিয়াই। স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ১৩২ কোটিরও বেশি টিকার ডোজ দেওয়া তুলে হয়েছে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির হাতে। ইতিমধ্যেই ১১৯ কোটিরও বেশি দেশবাসীকে করোনা টিকার একটি করে ডোজ দেওয়া সম্পন্ন হয়েছে।

close