জলের উপর তৈরী হবে ভাসমান শহর

রাজীব : ভাসমান হোটেল বা বাজার দেখেছি আমরা। সেগুলো সব ই ঘুড়তে যাওয়ার আকর্ষণ বাড়ায়। কিন্তু যদি একটা গোটা শহর ই হয় সমুদ্রে ভাসমান? ঠিক এরকম ই পরিকল্পনা করেছে এক দল বাস্তু বিজ্ঞানী। তাদের এই ভাসমান শহর তৈরী হবে ২০২৫ এর মধ্যে।

২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বের প্রথম ভাসমান শহর তৈরির পরিকল্পনা শুরু করেছে দক্ষিণ কোরিয়া। রিপোর্ট অনুসারে, এটি দক্ষিণ কোরিয়ার উপকূলে তৈরি হবে বলে জানা গিয়েছে। সম্ভবত এই পরিকল্পনা মাফিক শহর তৈরি করতে ২০২৫ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে। এমন অভিনব ও আধুনিক প্রকল্পটিকে সমর্থন জানিয়েছে জাতিসংঘও। সেখানে বলা হয়েছে সমুদ্রস্তর ক্রমশ বৃদ্ধির সমস্যা মোকাবিলায় শহরটি বুসানের উপকূলে নির্মিত হবে। উল্লেখ্য, এই অত্যাধুনিক প্রকল্পটির কর্মকর্তারা একটি বন্যারোধী পরিকাঠামোর মতো ব্যবস্থা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রকল্প অনুযায়ী বেশ কয়েকটি মানবসৃষ্ট দ্বীপ গঠিত হবে বলে জানা গিয়েছে। প্রকল্পের মূল লক্ষ্য হল সমুদ্রের জলস্তর বৃদ্ধির সঙ্গে বন্যার প্রবণতার থেকে শতহস্ত দূরে থাকা। জাতিসংঘের মানব বন্দোবস্ত কর্মসূচি ও OCEANIX-এর যৌথ প্রচেষ্টায় ভাসমান শহরটি একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ শহর হিসেবে তৈরি করা হবে। শহরটি সোলার প্যানেল থেকে নিজস্ব বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হবে। বিশেষ ভাবে তৈরি নৌকায় পর্যটকদের ও দ্বীপের মধ্যে বসবাসকারীরা ফেরির মাধ্যমে যাতায়াত করতে পারবে। নিজস্ব খাদ্য ও বিশুদ্ধ জল উৎপাদন করতেও সক্ষম হবে।

close