শহরের বুকে খুন স্বর্ণ ব্যবসায়ী!

জোনাকি পণ্ডিত: ভর সন্ধেবেলা অপহরণ স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে। মুক্তিপণ হিসেবে কয়েক লক্ষ টাকা চেয়ে ফোন আসে পরিবারের কাছে। এরপরেই ওই ব্যবসায়ীর দেহ মেলে এলগিন রোডের এক হোটেলে।

ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ী হাওড়ার বাসিন্দা। সোমবার সন্ধেবেলা নিজের ছেলের সঙ্গে ভবানিপুরের লি রোডে আসেন। এরপর তিনি যখন একটি পানের দোকানে যান পান কিনতে ঠিক তখনই একটি গাড়ি এসে দাঁড়ায়। চার পাঁচ জন দুষ্কৃতি ওই ব্যবসায়ীকে গাড়িতে তুলে নিয়ে চলে যায়।এর কিছুক্ষন পরই ওই ব্যবসায়ীর পরিবারের কাছে মুক্তিপন চেয়ে ফোন আসে। পরিবারের তরফ থেকে প্রথমে ভবানিপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে এবং পরে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের শীর্ষ কর্তারা তাকে উদ্ধার করতে নামেন। তবে গোয়েন্দা বিভাগ ইতিমধ্যেই তদন্তের কাজ শুরু করে দিয়েছে। ওই ব্যবসায়ীর ফোনের লোকেশন, সিসিটিভি-র ফুটেজ এবং অন্যান্য সূত্র খতিয়ে দেখছে তাঁরা। সোমবার রাতভর খোঁজ চলে। এরপর মঙ্গলবার সকালে এলগিন রোডের একটি হোটেল থেকে উদ্ধার হয়েছে ওই ব্যবসায়ীর দেহ।

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, ওই ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার পরে এখানেই আটকে রাখা হয়। এবং পরে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। তবে কারা এই ঘটনায় যুক্ত তা খুঁজে বার করতে ইতিমধ্যে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।সব দিক খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছেন তদন্তকারী অফিসাররা। এমনকি ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে কারোর কোনও শত্রুতা আছে কিনা। আর্থিক লেন্দেন সংক্রান্ত কোনও সমস্যা আছে সেই বিষয় গুলিও নজরে রাখছে পুলিশ।

 

close