সিঙ্গেল বেঞ্চ নিয়ে ফের শুনানি হাইকোর্টের

মৃগাক্ষী বিশ্বাস: স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগ মামলায় এবার রাজ্যের অর্থ দফতরকে যুক্ত করার নির্দেশ দিল হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। ২০১৯ সালে প্যানেল বাতিল হওয়ার পর যাঁরা নিয়োগপত্র পেয়েছেন, তাঁদেরও বেতন বন্ধ করতে বলা হল স্কুল সার্ভিস কমিশনকে।

২০১৬ সালে, রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলের চতুর্থ শ্রেণি বা গ্রুপ ডি পদে ১৩ হাজার কর্মী নিয়োগ করা হয়। তার মেয়াদ শেষ হয় ২০১৯ সালে। তারপরেও বহু কর্মপ্রার্থী চাকরি পেয়েছেন বলে অভিযোগ। ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে সিবিআইকে প্রাথমিক রিপোর্ট দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ”সিবিআই অনুসন্ধানের উপর স্থগিতাদেশ জারি করলেও, মূল মামলায় হস্তক্ষেপ করেনি ডিভিশন বেঞ্চ। সেকারণেই মামলাটি শুনলেন”।
গত ১৭ মে যেদিন শুনানি হয়েছিল, সেদিন বিভিন্ন স্কুলের চতুর্থ শ্রেণি বা গ্রুপ ডি পদে কর্মরত ২৫ জনের বেতন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। স্কুল সার্ভিস কমিশন গ্রুপ ডি পদে আরও ৫৪২ জনের নিয়োগ নথি সংক্রান্ত আদালতে জমা দিয়েছে। তাদের মধ্যে যাঁদের প্যানেল বাতিল হওয়ার অনুমতিপত্র দেওয়া হয়েছে তাঁদেরও বেতন বন্ধ করে দিতে হবে। মামলার পরবর্তী শুনানি ১০ ডিসেম্বর।

close