হিজাব বিতর্ক ঘিরে রণক্ষেত্র আকার নিয়েছে কর্ণাটক!

জোনাকি পণ্ডিত: হিজাব বিতর্কে উত্তাল কর্ণাটক। অনেক দিন ধরেই চলছে এই বিতর্ক। কিন্তু তা শনিবার রাজীব গান্ধীর মন্তব্যে নতুন মাত্রা পেল। কর্ণাটকের বিজেপি সরকার জানিয়েছে যে সব পোশাক সমতা ,অখণ্ডতা ও আইন-শৃঙ্খলার পরিপন্থী। তা পরা নিষিদ্ধ। আর তারপরই এই নির্দেশ ঘিরে পারদ তুঙ্গে।

তবে কর্ণাটকে পোশাক বিতর্ক নতুন নয়। জানা গেছে, কর্ণাটক শিক্ষা আইন, ১৯৮৩-র ১৩৩ (২) ধারা অনুযায়ী, সমস্ত পড়ুয়াকে কলেজ কমিটির নির্ধারণ করে দেওয়া পোশাক পরেই কলেজে আসতে হবে। তবে নতুন বছরের শুরু থেকেই আবার মাথাচাড়া দিয়েছে এই বিতর্ক। উদুপি ও চিক্কামাগালুর কলেজের কিছু পড়ুয়া হিজাব পড়ে কলেজে আসতেই শুরু হয় বিক্ষোভ।

তবে এই প্রসঙ্গে শনিবারই রাহুল গান্ধী ট্যুইট করে বলেন, “শিক্ষার পথে হিজাবকে বাধা হতে দিয়ে আমরা ভারতের মেয়েদের ভবিষ্যৎ কেড়ে নিচ্ছি। মা সরস্বতী সকলকে জ্ঞান দান করেন। তিনি বিভেদ করেন না।” রাহুলের এই মন্তব্যে পালটা জীবন দিয়েছেন কর্ণাটক বিজেপি। তাদের অভিযোগ, শিক্ষাক্ষেত্রে সাম্প্রদায়িকতা ঢোকাচ্ছেন কংগ্রেস নেতা।

উল্লেখ্য, রাজ্য সরকার জানিয়েছে মুসলিম ছাত্রীদের হিজাব পরে ক্লাস করা নিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষকে সিদ্ধান্ত নিতে। তবে কিছু কলেজ হিজাব পরে কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে ঠিকই, কিন্তু ছাত্রীরা ওই পোশাক পরে ক্লাস করতে পারবেন কিনা, তা স্পষ্ট করে জানানো হয়নি। এদিকে মুসলিম ছাত্রীদের দাবি, হিজাব পরেই তাঁদের ক্লাস করার অনুমতি দিতে হবে। ফলে হিজাব কাণ্ড ঘিরে উত্তপ্ত কর্ণাটক।

close