রাইফেল শ্যুটারের স্বপ্ন পূরণ সোনু সুদের

অভিনেতা সোনু সুদ, যিনি করোনাভাইরাস মহামারীর সময় হাজার হাজার মানুষকে সমর্থন করেছেন, তিনি তার দাতব্য সংস্থা সুদ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে তার ভাল কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি এবং তার দাতব্য সংস্থা সম্প্রতি ঝাড়খন্ডের একজন সংগ্রামী শ্যুটারকে একটি রাইফেল কিনতে সহায়তা করেছিলেন। শ্যুটার কোনিকা লায়াক টুইট করে সোনু সুদের কাছ থেকে সাহায্য চেয়েছিলেন। সাহায্য পাওয়ার পর তিনি টুইট করে এ সম্পর্কে তথ্য দেন। এই প্রসঙ্গে সোনু বলেন, অলিম্পিকে ভারতের পদক নিশ্চিত।

সোনু সুদকে ট্যাগ করে লয়ক তাঁর আবেদনে লিখেছেন, “একাদশ ঝাড়খন্ড স্টেট রাইফেল শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে আমি একটি রৌপ্য এবং স্বর্ণপদক জিতেছি। যাইহোক, সরকার আমাকে মোটেও সাহায্য করেনি। দয়া করে আমাকে রাইফেল দিয়ে সাহায্য করুন।” ধানবাদ ভিত্তিক কোনিকা লায়েক দুইবার জাতীয় দলের হয়ে যোগ্যতা অর্জন করা সত্ত্বেও তার কোচ বা তার বন্ধুদের কাছ থেকে ধার করা রাইফেলের উপর নির্ভরশীল ছিলেন। মার্চমাসে তার আবেদনে সাড়া দিয়ে সোনু সুদ তাকে আশ্বাস দেন যে তিনি শীঘ্রই একটি রাইফেল পাবেন।


কনিকা দ্য টেলিগ্রাফের সাথে কথোপকথনে বলেছিলেন, “আমার রাইফেল থাকতে পারে না কারণ এর দাম প্রায় ৩ লক্ষ টাকা। রাইফেলের জন্য আমাকে আমার কোচ বা আমার বন্ধুর উপর নির্ভর করতে হবে। আমি আমার বন্ধুদের কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকার ব্যবস্থা করেছিলাম এবং রাইফেলের জন্য এক লক্ষ টাকা ঋণ নিয়েছিলাম। ভাগ্যক্রমে সোনু সুদ ফাউন্ডেশন রাইফেলের জন্য অবশিষ্ট তহবিলের ব্যবস্থা করেছিল।

জার্মান তৈরি রাইফেলটি আড়াই মাসের মধ্যে আমার কাছে পৌঁছে যাবে। অবশেষে শনিবার (২৬ জুন) রাইফেলটি যখন লয়াকে পৌঁছায়, তখন তিনি সোনু সুদকে ধন্যবাদ জানাতে টুইট করেন। কোনিকা লয়ক লিখেছিলেন, “স্যার, আমার বন্দুক এসে গেছে। আমার পরিবারে সুখের ঢেউ ছড়িয়ে পড়েছে এবং পুরো গ্রাম আপনাকে আশীর্বাদ করছে। জগ জগ জিও সোনু সুদ স্যার। ধন্যবাদ।” এর জবাবে সোনু সুদ লিখেছেন, “ভারতের অলিম্পিক পদক নিশ্চিত হয়েছে। এখন শুধু প্রার্থনা দরকার।

close